সিএনজি চালকের সাথে স্কুল শিক্ষিকার আপত্তিকর অবস্থায় আটক, এলাকায় তোলপাড়

0
2006

সিএনজি চালকের সাথে স্কুল শিক্ষিকার আপত্তিকর অবস্থায় আটক, এলাকায় তোলপাড় সৃষ্টি হয়েছে। এমন ঘটনাটি ঘটেছে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার বিজয়নগর উপজেলার হরষপুর ইউনিয়নে নিদারাবাদ এলাকায়।

ওই স্কুল শিক্ষিকা উপজেলার পাচঁগাও সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারি শিক্ষকা রোকসানা আলম পপি । স্কুল শিক্ষিকা সে দুই সন্তানের জননী  তার স্বামীও মাধ্যমিক স্কুলের একজন শিক্ষক। সেই স্কুল শিক্ষিকা  স্বামীর অগোচরে সিএনজি চালকের সাথে তার অসাসাজিক কার্যকলাপে লিপ্ত থাকা অবস্থায় সে আটক হয় নিজ কক্ষে।

গত কাল রোববার (১১ অক্টোবর) দুপুর ২ টার দিকে উপজেলার নিদারাবাদ দেওয়ানবাজার এলাকায় একটি  বহুতল ভবনের দ্বিতীয় তলায় শিক্ষিকার ভাড়াটিয়া  বিল্ডিং এর একটি শয়ন কক্ষে সিএনজি চালকের সাথে আপত্তিকর অবস্থায় আটক হয়।  এ নিয়ে পুরো এলাকাজুড়ে  চাঞ্চল্যকর পরিবেশ সৃষ্টি হয়েছে। 

স্কুল শিক্ষিকা তার স্বামী ও দুই সন্তান রেখে একই ইউনিয়নের ধোরানাল গ্রামে মৃত হেলাল উদ্দিনের ছেলে দুই সন্তানের জনক মো:  ফারুক মিয়ার সাথে আজ রোববার (১১ অক্টোবর) দুপুরে  আপত্তিকর অবস্থায় ধরা পড়ে  ওই স্কুল শিক্ষিকা। এ নিয়ে পুরো এলাকা জুড়ে বইছে সমালোচনার ঝড়।

দাড়িয়াপুর গ্রামের কৃষকলীগ নেতা মো: রুহুল আমিন জানান,  ছেলে ও মেয়ে আপত্তিকর অবস্থায় স্কুল শিক্ষিকার স্বামী দেখতে পেয়ে তাৎক্ষণিক ভাবে আশপাশের লোকদেরকে খবর দিলে অসামাজিকাজে লিপ্ত থাকা অবস্থায় ছেলে মেয়েকে আটক হয়। 

পাহাড়পুর ইউনিয়নের ১নং ওয়ার্ড মেম্বাব আব্দুর রশিদ জানান, দুপুরে মেয়ের স্বামী ফিরে ঘরে ঢুকতে যেয়ে ঘরে ভেতরে আপত্তিকর অবস্থায় দেখতে পেয়ে আশপাশে থাকা লোকদেরকে ডেকে এনে দুইজনকে আটক করে।

এ ব্যাপারে বিজয়নগর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) আতিকুর রহমান বলেন, এবিষয়ে কেউ কোন কিছু থানাকে জানায়নি। যদি কেউ জানায় তাহলে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।