১৩ দিনের লকডাউনে সরকারি কোষাগারে অনাকাঙ্ক্ষিত আয়

0
186

কভিড আক্রান্তের ৩য় ধাপে রাজধানীতে গত ১৩ দিনের লকডাউনের বিধিনিষেধ অমান্য করে ঘরের বাইরে বের হওয়ায় ১১ হাজার ৪৩৪ জনকে গ্রেফতার করেছে ঢাকা মহানগর পুলিশ (ডিএমপি)। এরমধ্যে থানা পুলিশ গ্রেফতার করেছে ৮ হাজার ৫৪০ জন এবং মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করে গ্রেফতারের পর সাজা দেওয়া হয়েছে ২ হাজার ৮৯৪ জনকে। এ সময় জরিমানা হিসেবে আদায় করা হয়েছে ২ কোটি ৫ লাখ ৩৯ হাজার ৯০৫ টাকা, যা সরকারি কোষাগারে জমা  হয়েছে।

বুধবার (১৪) ডিএমপি সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।  

১ জুলাই থেকে ১৩ জুলাই পর্যন্ত সরকার ঘোষিত কঠোর লকডাউনের বিধিনিষেধ বাস্তবায়নে রাজধানীতে কাজ করেছে ঢাকা মহানগর পুলিশ (ডিএমপি)। ডিএমপির ক্রাইম বিভাগ ও ট্রাফিক বিভাগ একযোগে সরকারের প্রজ্ঞাপন অনুযায়ী মানুষকে ঘরে থাকতে সচেতন করার পাশাপাশি বিধিনিষেধ অমান্যকারীদের গ্রেফতার, জেল ও জরিমানা করে। তবে শাস্তিপ্রাপ্ত নাগরিকদের মধ্যে বেশিরভাগই ছিল নিম্ন আয়ের মানুষ।  null

জানা গেছে, ১ জুলাই থেকে ১৩ জুলাই পর্যন্ত ডিএমপির ক্রাইম বিভাগ ৮ হাজার ৫৪০ জনকে গ্রেফতার করে। মোবাইল কোর্টে সাজা দেওয়া হয় ২ হাজার ৮৯৪ জনকে। ১৩ দিনে ক্রাইম বিভাগ ৩৭ লাখ ৭৯ হাজার ৬৩০ টাকা জরিমানা আদায় করে। অপরদিকে এই সময়ে ডিএমপির ট্রাফিক বিভাগ বিভিন্ন গাড়ির বিরুদ্ধে ৭ হাজার ৩৯৫টি মামলা করেছে। এ বাবদ জরিমানা আদায় করা হয়েছে  ১ কোটি ৬৭ লাখ ৬০ হাজার ২৭৫ টাকা। অর্থাৎ ক্রাইম ও ট্রাফিক বিভাগ এসময় ২ কোটি ৫ লাখ ৩৯ হাজার ৯০৫ টাকা আয় করে সরকারি কোষাগারে জমা দিয়েছে। যদিও পুলিশ এটিকে আয়  বলতে রাজি নয়। তারা এটিকে  শাস্তি হিসেবেই দেখছে এবং জরিমানার টাকাকে বলা হচ্ছে শাস্তি থেকে অনাকাঙ্ক্ষিত আয়।