মাদক বিক্রি হলে কাউন্সিলর/ইউপি চেয়ারম্যানকে জবাবদিহিতা করতে হবে

0
369

নিজস্ব প্রতিবেদক:

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার মাদকদ্রব্যের প্রসার যেভাবে বাড়ছে, তার জন্য জেলা প্রশাসক (ডিসি), পুলিশ সুপার (এসপি) ও মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের কর্মকর্তারাও সমপরিমাণে দায়ী বলে মন্তব্য করেছেন ব্রাহ্মণবাড়িয়া-৩ (সদর ও বিজয়নগর) আসনের সংসদ সদস্য র. আ. ম. উবায়দুল মোকতাদির চৌধুরী। 

রোববার (১৯ সেপ্টেম্বর) বিকেলে ব্রাহ্মণবাড়িয়া শহরের শহীদ ধীরেন্দ্রনাথ দত্ত ভাষা চত্ত্বরে আয়োজিত মাদকবিরোধী সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ মন্তব্য করেন।

ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা প্রশাসন, জেলা পুলিশ, ব্রাহ্মণবাড়িয়া পৌরসভা ও মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তর যৌথভাবে এ মাদকবিরোধী সভার আয়োজন করে। সভায় কয়েকজন বক্তা ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলায় মাদকের প্রসার ও সহজলভ্যতার বিষয়টি উল্লেখ করেন।

মাদক নিয়ে কয়েকজন বক্তার বক্তব্যের রেশ টেনে মোকতাদির চৌধুরী বলেন, আপনারা যদি সত্যি সত্যি জানেন যে, এখানে মাদকের ব্যবসা হয়, এই লোকগুলো মাদকের ব্যবসা করে; কোনো কারণে আপনারা যদি মোকাবিলা করতে সাহস না পান, আমি আপনাদের পাশে থাকব। আমাকে বলবেন ওমুক জায়গায় ওমুক ওমুক আছেন, আপনি আসেন আমাদের সঙ্গে। যদি পুলিশ না যায়, বিজিবি না যায়, মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের কেউ না যান, আমি আপনাদের পাশে থাকব। মাদক ব্যবসায়ীদের ধরে এনে পুলিশে দেব।

তিনি বলেন, যে পৌরসভার ওয়ার্ডে মাদক বিক্রি হবে, সেই কাউন্সিলরকে এবং যে উপজেলার যে ইউনিয়নে মাদক বিক্রি হবে, সেই ইউপি চেয়ারম্যানকে জবাবদিহিতা করতে হবে। সবাইকে যার যার দায়িত্ব পালন করতে হবে। অন্যথায় আমরা পরবর্তী প্রজন্মকে রক্ষা করতে পারব না। একজন আরেকজনকে দোষারোপ করে লাভ নেই।

জেলা প্রশাসক হায়াদ উদ-দৌলা খাঁনের সভাপতিত্বে সমাবেশে অন্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, পুলিশ সুপার মো. আনিসুর রহমান, ব্রাহ্মণবাড়িয়া পৌরসভার মেয়র নায়ার কবির, জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আল মামুন সরকার, সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ফিরোজুর রহমান, ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রেস ক্লাবের সভাপতি রিয়াজ উদ্দিন জামি ও সাধারণ সম্পাদক জাবেদ রহিম বিজন প্রমুখ।

MA/ Bijoynagar tv